অঞ্চলের সংজ্ঞা

সংজ্ঞাঃ
বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকাকে ভূমিরূপ, মৃত্তিকা, পানি ও কৃষি জলবায়ুগত বৈশিষ্ট্য অনুসারে যে ৩০টি অঞ্চলে ভাগ করা হয়েছে তাকে কৃষি পরিবেশ অঞ্চল বলা হয়। এ সকল অঞ্চলকে আবার ৮১টি উপ অঞ্চলে ভাগ করা হয়েছে। প্রধান যে ৪টি উপাদান ভিত্তি বিবেচনা করে বাংলাদেশকে উপরোক্ত ৩০টি কৃষি পরিবেশ অঞ্চলে ভাগ করা হয়েছে তা হলোঃ-

ক) ভূমিরূপ (Physiography) ও মৃত্তিকা উৎস দ্রব্যঃ মৃত্তিকা এবং উদ্ভিদ আচ্ছাদনের বৈশিষ্ট্য। ভূমিরূপকে প্রাথমিকভাবে বিবেচনা করে ২০টি ভূমিরূপ একক এবং একে পুনরায় ৩০টি উপ - এককে ভাগ করে ৩০টি কৃষি পরিবেশ অঞ্চলে অন-র্ভূক্ত করা হয়েছে।

খ) মৃত্তিকা (Soil) - উদ্ভিদ বৃদ্ধি সম্পন্ন মৃত্তিকা গুণাবলীর পরিপ্রেক্ষিতে ১৬টি সাধারণ প্রকারের মৃত্তিকাকে বিভিন্ন কৃষি পরিবেশ অঞ্চলের অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

গ) পানি পরিস্থিতি ( Hydrology) - মৌসুমী প্লাবন ও জমির উচ্চতার ভিত্তিতে ৫ প্রকার জমি কৃষি পরিবেশ অঞ্চলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।

ঘ) কৃষি জলবায়ু (Agro – climate ) - এলাকাভেদে ফসল জন্মানোর সময়সীমা ও বৃষ্টিপাত বৈশিষ্ট্য (খরিপ ও রবি) এবং উত্তাপ (রবি ও গ্রীষ্ম) প্রয়োজনীয়ভাবে কৃষি পরিবেশ অঞ্চলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে।