সংরক্ষনের জন্য খাদ্য নির্বাচন

সংরক্ষনের জন্য তাজা, টাটকা এবং উৎকৃষ্ট মানের খাদ্য বেছে নিতে হবে। ফুলকপি, মটরশুঁটি, বাঁধাকপি ইত্যাদি সবজি এবং সস, স্কোয়াস, জেলী, জ্যাম, মার্মালেড, আচার, মোরব্বা, শুটকী, নোনা ইলিশ যা কিছুই সংরক্ষন করা হবে সে সব খাদ্যই উন্নত মানের এবং তাজা ও সরস হওয়া দরকার। অপরিণত, আঁচর কাটা, পোকা খাওয়া, খোসায় চিতি পড়া বা সামান্য পচা এমন সবজি, ফল সংরক্ষনের জন্য নির্বাচন করা উচিত নয়। যেমন মোটরশুঁটি খোসা ছাড়াবার পর বড় ও পুষ্ট বীচি রেখে বাকীগুলো বেছে বাদ দিতে হবে। উৎকৃষ্ট ফল দিয়ে উন্নত মানের জ্যাম, জেলী, স্কোয়াস তৈরি করা যেতে পারে। ভরা মৌসুমে যে সব ফল একই সময়ে গাছে ধরে এবং এক সাথে পাকে সে সব ফল দিয়ে জ্যাম, জেলী, স্কোয়াস সুন্দর হয়। এর কারন,সমান আকার এবং একই রঙের ফলের পরিপক্কতা একরকম হয়। শুটকী, নোনা ইলিশ এবং বরফে জমিয়ে রাখার জন্য মাছ, মাংস খুব তাজা ও সরস হওয়া বাঞ্ছনীয়। বাসি মাছ-মাংস, ফল-সবজি বেশি দিন সংরক্ষন করা যায় না।