আগুনে ফুটিয়ে খাদ্য সংরক্ষন

ফুটানো তাপে খাদ্যের অনুজীব ঈস্ট, মোলড, ব্যাকটেরিয়া মরে যায় এবং এনজাইমও নষ্ট হয়। ফুটাবার পর খাদ্য বাতাসবিহীন অবস্থায় বায়ুশুন্য টিনের বা কাঁচের পাত্রে অনেকদিন সংরক্ষন করা যায়। ফল, সবজি, মাছ, মাংস এই পদ্ধতিতে সংরক্ষন করা হয়। ফুটিয়ে সংরক্ষন করার পদ্ধতিকে টিনজাতকরন বা বোতলজাতকরণ বলা হয়- ইংরেজীতে বলে canning বা bottling। ক্যানিং পদ্ধতিতে খাদ্যের সজীবতা ও পুষ্টিমান অক্ষুন্ন রেখে সংরক্ষণ করা হয় আবার ফলের শাঁস, রস ও পেকটিন নির্যাস দিয়ে জ্যাম, জেলী, সস, স্কোয়াস তৈরি করে বোতল জাত করা হয়। মিষ্টি ও সুগন্ধের জন্য ফল দিয়েই জেলী, জ্যাম, মার্মালেড, ক্যান্ডি ও স্কোয়াস তৈরি হয়। বাংলাদেশে জ্যাম, জেলী তৈরির জন্য আনারস, পেয়ারা, মেষ্টা, কুল এবং কাঁচা আম উপযোগী ফল।